Home
Contact
 
 
 
 
 
 
 
 
Home » Noble Footsteps » Mahatma Gandhi » সোদপুর খাদি ও কলাশলা (প্রবাসী-মাধ, ১৩৩৩)
 
সোদপুর খাদি ও কলাশলা (প্রবাসী-মাধ, ১৩৩৩)
 
 
  গত ১৮ই পৌষ মহাত্মা গান্ধী সোদপুরের খাদি প্রতিষ্ঠান কর্মশালা দ্বারোদ্ঘাটন করেন। এই উপলক্ষে সহস্র সহস্র লোকের সমাগম হইয়াছিল। সভাস্থলে শৃঙ্খলা রক্ষার উত্তম ব্যবস্থা করা হইয়াছিল। সমুদয় স্থানটি সুসজ্জিত করা হইয়াছিল।

সোদপুর কলাশালার বস্ত্রশিল্পসম্বন্ধীয় সমুদয় কাজ বৈঞ্জানিক যন্ত্রের দ্বারা চলিতেছে। এইসব যন্ত্রের অধিকাংশ শ্রীযুক্ত সতীশচন্দ্র দাসগুপ্ত কর্তৃক পরিকল্পিত। উত্তম খাদি উৎপাদন করিবার নিমিত্ত, তাঁহার উদ্ভাবিত যন্ত্রগুলি ছাড়া আরও অনেক যন্ত্র এখানে ব্যবহৃত হয়। ধোলাই, রং করা, ইস্ত্রিকরা, প্রভৃতি কাজ এখানে বাস্পের সাহায্যে করা হয়। সুতরাং মজবুতি, সূক্ষতা বা স্থূলতার সাম্য, নম্বর, পাক প্রভৃতির পরিক্ষাও এখানে যন্ত্রের দ্বারা করা হয়। এই প্রকার নানা উপায়ে এখানে খাদির উৎকর্ষ সাধিত হইতেছে। এই কর্মশালায় ইতিমধ্যে দুই শত নম্বরের সুতার মসলিন প্রস্তুত হইয়াছে। দ্বারোদ্ঘাটন মহাত্মা গান্ধী করায়, এই অনুমান করা যাইতে পারে, যে, তিনি যন্ত্র বলিয়াই যন্ত্রের বিরোধী নহেন, এবং যদি কেহ সুতা কাটিবার এরূপ সস্তা যন্ত্র নির্ন্মান করিতে পারেন যাহা ক্রয় করা এবং ব্যবহার করা কুটীরবাসী গ্রাম্য লোকেদেরও সাধ্যায়ত্ত, তাহা হইলে তাহার ব্যবহারে আমার আপত্তি হইবে না। কারণ, তাহা ব্যবহার করিলে গরীব কুটিনীদের উপার্জ্জন বাড়িবে। অল্প শ্রমে ও সময়ে অধিক উপার্জ্জন হইলে তাহারা অবসর-সময়ে ঞ্জানোপার্জ্জন ও ধর্ম্মচিন্তা করিতে পারবে।

খদ্দরের বিস্তৃত প্রচলন আমরা সর্বান্তঃকরণে চাই। সেই জন্য ইহাও আমরা ইচ্ছা করি, যে, খাদি প্রতিষ্ঠান এবং অন্য যারা খদ্দর বয়ন করেন, তাঁহাদের প্রস্তুত বস্ত্র আরও উৎকৃষ্ট ও সস্তা হউক। তাহা হইলে উহা সর্ব্ব-সাধারণে ব্যবহার করিতে পারিবে।
 
 
 
 
 
 
Image Gallery of Gandhi at Sodepur
 
কর্মীদের অবস্থান-গৃহ
 
রক্ষনশালা
 
 
Home | Emergency | Tender | Services | Train Time Table | Contact Us